কনসার্টের টাকায় ৩ হাজার শিশুর হার্ট সার্জারি!

ভারতীয় সংগীতশিল্পী প’ল’ক মুচ্ছাল প্রতিনিয়ত সমাজসেবামূলক কাজ করে জয় করেছেন মানুষের হৃদয়। প্র’তি’টি কনসার্ট থেকে প্রাপ্ত পারিশ্রমিক দিয়ে তিনি এ পর্যন্ত ৩ হাজার শিশুর হার্টের অস্ত্রোপচার করিয়েছেন।

অস্ত্রোপচারের পর তারা সবাই সুস্থ রয়েছেন। খ’ব’র’টি সামনে আসতেই পলকের প্রশংসায় পঞ্চমুখ নেটিজেনরা।সেভিং লিটল হার্টস’ নামে এ’ক’টি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা আছে গায়িকা পলক মুচ্ছালের। এই সংস্থা থেকে হৃদ্‌রোগে আক্রান্ত শিশুদের অস্ত্রোপচারের ব্যবস্থা করেন তিনি।

এই উ’দ্যো’গে’র বিষয়ে পলক বলেন, আমি যখন এই মিশনটি শুরু করি, তখন এটা এ’ক’টা ছোট উদ্যোগ ছিল। যে উদ্যোগ সাত বছরের একটি শিশুর জীবন বাঁচিয়েছিল। এখন এটা আমার জীবনের সবচেয়ে বড় মিশন হয়ে উঠেছে। এই মু’হূ’র্তে অস্ত্রোপচারের জন্য অপেক্ষায় রয়েছে ৪১৩ শিশু। তিনি আরও বলেন, যেসব শি’শু’র হার্টে সমস্যা।

কিন্তু হার্ট সার্জারি করার মতো অর্থ তাদের বাবা-মায়ের নেই, আমি তাদের জন্য কনসার্ট করি। আমি অনুভব করি, এটি আমার দা’য়ি’ত্ব। আমি সত্যি খুব আনন্দিত। কারণ কাজটি করানোর জন্য ঐশ্বর আমাকে নি’র্বা’চ’ন করেছেন। এই শিল্পী বলেন- যখন আমার কাছে সিনেমায় প্লেব্যাকের কোনো কাজ ছিল না, তখনো আমি তিন ঘণ্টা গান গেয়েছি শুধু শি’শু’দে’র জন্য অর্থ সংগ্রহ করতে। আমার গান যত জনপ্রিয় হতে থাকে ততই আমার পারিশ্রমিক বা’ড়’তে থাকে।

আমি এখন কনসার্ট থেকে যে অর্থ উপার্জন করি, তা থেকেই ১৩-১৪টি শিশুর অস্ত্রোপচার সম্ভব। আর এই গানকে আমি সমাজ পরিবর্তনের মা’ধ্য’ম হিসেবে দেখে আসছি সবসময়। মঙ্গলবার (১১ জুন) ছিল পলক মুচ্ছালের জীবনের অ’ন্য’ত’ম স্মরণীয় দিন। ইনস্টাগ্রামে এদিন তিনি আট বছর বয়সী অলক সাহুকে নিয়ে একটি পোস্ট করেন। শি’শু’টি হৃদরোগে আক্রান্ত ছিল।

আর ওইদিনই তার সফলভাবে অস্ত্রোপচার হয়। বরাবরের মতো অপারেশন থিয়েটারে হাজির ছিলেন গায়িকা। অ’ল’কে’র এই অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে হৃদরোগে আক্রান্ত ৩ হাজার শিশুর অস্ত্রোপচারের ব্য’ব’স্থা করলেন পলক। সংগীত ক্যারিয়ারে অনেক সিনেমায় প্লেব্যাক করেছেন পলক মুচ্ছাল। ‘আশিকি’ সিনেমার ‘মেরি আশিকি’ ও ‘চাহুন মে ইয়া না’ গান দু’টি’তে কণ্ঠ দেন এই সুরেলা কণ্ঠী শিল্পী।

Leave a Comment