প্রেমিকের সঙ্গে ঘর ছাড়লেন মা, লজ্জায় মেয়ের আ’ত্ম’হ’ত্যা!

বরিশালের বানারীপাড়ায়’ সপ্তম শ্রেণিপড়ুয়া জান্নাতুলের ঝুলন্ত মরদেহ’ উদ্ধার করেছে পুলিশ। স্বজন ও স্থানীয়দের দাবি, তার মা প্রেমিকের সঙ্গে পালিয়ে যাওয়ায়, চক্ষুলজ্জায়’ সে আত্মহত্যা’ করেছে। মঙ্গলবার (১১ জুন) সকাল সাড়ে ৮টার দিকে বাথরুমে ঝুলন্ত অবস্থায় তাকে উদ্ধার’ করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে’ নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত কিশোরী’ জান্নাতুল (১৩) বানারীপাড়া উপজেলার সলিয়াবাকপুর ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ড ধারালিয়া’ গ্রামের বাসিন্দা, সৌদিপ্রবাসী’ নাসির উদ্দিন পাপনের মেয়ে। সে ধারালিয়া সৈয়দ বজলুল হক মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের’ সপ্তম শ্রেণির’ ছাত্রী ছিল। পুলিশ, স্বজন ও স্থানীয়রা বলছে, জান্নাতুলের মা শান্তা আক্তার সোমবার’ (১০ জুন) রাতের কোনো’ এক সময় তার প্রেমিকের হাত ধরে চলে যান।

মঙ্গলবার সকালে জান্নাতুল’ ঘুম থেকে উঠে ঘরে দেখতে না পেয়ে, সম্ভাব্য সব জায়গায় খোঁজ করে মায়ের সন্ধান পায়নি। তার আপত্তি’ সত্ত্বেও মায়ের অনৈতিক সম্পর্কের কথা জানতেন জান্নাতুল। সমাজে নানা জনের’ নানা কথা শুনতে হবে ভেবে’ সে আত্মহত্যা করে থাকতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। জান্নাতুলের দাদি ফিরোজা’ বেগম জানিয়েছেন, ‘ছেলে সৌদি থাকাবস্থায় জান্নাতের মা শান্তা তাদের সঙ্গেই থাকতেন। ওই ঘরে’ দুটি সন্তান রয়েছে। বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের বিষয়টি জানার পর তাকে বারবার’ ওই পথ থেকে সরে আসার’ জন্য বলা হয়। কিন্তু কোনোভাবেই সে কথা শুনতো না। এ কারণে তাদের ঘর ছেড়ে’ ভাড়া বাসায় গিয়ে ওঠে।

সর্বশেষ সোমবার’ শান্তার বাসায় বেড়াতে যান তিনি। বাড়িতে আসার সময় ছোট নাতিকে নিয়ে তার সঙ্গে নিয়ে’ আসেন। মঙ্গলবার সকালে’ খবর পান তার বড় নাতনি জান্নাত গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। তার মাকেও’ পাওয়া যাচ্ছে না। তিনি বলেন ‘আমার নাতনি মেধাবী ছিল। সকালে ঘুম থেকে ওঠে মাকে না দেখে সে বুঝতে পারে’ তার মা প্রেমিকের’ সঙ্গে পালিয়েছে। লোকলজ্জায় জান্নাত বাথরুমে ওড়না পেঁচিয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা’ করেছে ধারণা করছি।

বেলা ১২টার দিকে ‘তার মরদেহ উদ্ধার করে নিয়ে যায় বানারীপাড়া থানা পুলিশ। এ বিষয়ে জান্নাতুলের’ বাবা, সৌদিপ্রবাসী’ নাসির উদ্দিন পাপন মোবাইল ফোনে জানান, ‘গত কয়েক মাস আগে বেতাল গ্রামের নাঈম’ নামের এক যুবককে গভীর’রাতে নিজ ঘরে মায়ের সঙ্গে দেখে ফেলে তার মেয়ে। পরে লোকলজ্জার ভয়ে মেয়ে জান্নাতুল’ মাকে ক্ষমা করে দেওয়ার’ জন্য তার কাছে আকুতি জানায়। এ বিষয়ে বানারীপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাইনুল ইসলাম বলেন, ‘নিহত জান্নাতুলের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য বরিশাল শেবাচিম মর্গে পাঠানো হয়েছে। লিখিত’ অভিযোগ পেলে পরবর্তী’ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Comment